চালু হল পৌর সিএনজি সার্ভিস


ফেনী শহরের যানজট নিরসনে ও পৌরবাসীর দুর্ভোগ লাগবে চালু হলো ফেনী পৌরসভা পরিচালিত সিএনজি সার্ভিস।

আজ বৃহস্পতিবার (২৮অক্টোবর) দুপুরের দিকে ফেনী কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে পৌর সিএনজি সার্ভিসের উদ্বোধন করেন ফেনী-২ আসনের সাংসদ ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী।

উদ্বোধনকালে সাংসদ বলেন, আগামীকাল থেকে একজন ম্যাজিস্ট্রেট এর নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হবে, যাতে পৌর সিএনজি ছাড়া অন্য কোন সিএনজি না চলতে পারে।

সাংসদ বলেন, ট্রাফিক বিভাগের পুলিশ আন্তরিকতার সাথে কাজ করলে পৌর সিএনজি সার্ভিস বাস্তবায়ন হবে। চালকদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, কোন যাত্রীর সাথে অশোভন আচারন করা যাবে না। যদি কেউ করে থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। এসময় তিনি যানজট নিরসনে পৌরসভার সাথে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহবান জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক আবু সেলিম মাহমুদ-উল হাসান বলেন, এই কাজ সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন করতে পারলে ২০৪১ সালে উন্নয়নশীল দেশে রুপান্তর হওয়ার যে স্বপ্ন সে স্বপ্ন বাস্তবায়নে সহযোগিতা করবে।

তিনি বলেন, পৌর সিএনজি চালু হলে যানযট কম যাবে। পৌরবাসী এটাই চায় তারা সুন্দর ভাবে শহরে চলাফেরা করবে। এই পৌর সিএনজি সার্ভিস চালু হলে শহরের মানুষের ভোগান্তি কমে যাবে। এই সার্ভিস সঠিক বাস্তবায়নের পৌর কর্তৃপক্ষের সবাইকে কাজ করার আহবান জানান তিনি। পৌর সিএনজি ছাড়া অন্য কোন সিএনজি যাতে শহরে না চলাচল করতে পারে সে জন্য মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে বলে জানান তিনি। পৌরবাসীকে পৌরসভা কর্তৃক সিএনজি ব্যাতীত অন্য সিএনজি ব্যবহার না করার অনুরোধ করেন জেলা প্রশাসক।

পুলিশ সুপার খোন্দকার নূরুন্নবী বলেন, পৌর সিএনজির মাধ্যমে পৌরবাসী উপকৃত হবে। ফেনীতে এসে আমার মনে হয়েছে এখানে ঢাকা থেকে কোন কিছুর কমতি নেই। ঢাকা শহরের মতো সব কিছু পাওয়া যায়। ফেনী থেকে ডাক্তার এর জন্য ফেনী থেকে বাইরে যেতে হয়নি। কখনও অনুভব করিনি ঢাকার বাইরে আছি। তিনি বলেন, ফেনী আশেপাশের জেলা শহর থেকে অনেক উন্নত।
পৌর সিএনজি সম্পর্কে তিনি বলেন, এতে করে নগরবাসী সহজে যাতায়াত করতে পারবে। ফেনী শহরের যানযট নিরসনে অনেক ভুমিকা রাখবে। এমন উদ্যোগের জন্য পৌরসভাকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

অনুষ্ঠান সভাপতি ফেনী পৌরসভা মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী বলেন, ফেনী পৌরসভার মেয়র থাকাকালীন এমপি মহোদয় ফেনীর উন্নয়ন করে দিয়েছেন। ফেনী পৌরসভার সকল উন্নয়ন এমপি মহোদয় করে গেছেন। আমরা তা অব্যাহত রাখছি। ফেনীতে যে সকল উন্নয়ন মূলক কাজ করা হয় তার সবকিছু ওনার নির্দেশে ওনার পরামর্শে আমি ও কাউন্সিলর রা মিলে করছি।

তিনি বলেন, প্রথম অবস্থায় ফেনী পৌর এলাকায় ২৫০টি সিএনজি চলবে। ফেনী পৌরসভায় কোন স্ট্যান্ড থাকবে না। ১-২ মিনিটের মধ্য যাত্রী নিয়ে আবার চলে যেতে হবে। যত্রতত্র পার্কিং করা যাবে না। পৌর সিএনজির বাইরে কোন সিএনজি পৌরসভার ভাড়া চালাতে পারবে না। পৌর সিএনজির বাইরে অন্য কোন সিএনজি চললে তাদের বিরুদ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি বলেন, আগামী ১ মাসের মধ্যে ফেনীকে যানজট মুক্ত করা হবে। হকার মুক্ত, যানজট মুক্ত ফেনী শহর গড়তে সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহবান জানান পৌর মেয়র।

ফেনী পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাহার উদ্দিন বাহারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ফেনী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বিমল কান্তি পাল, ফেনী সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা, ফেনী আলীয়া মাদ্রাসা অধ্যক্ষ মাওলানা মাহমুদুল হাসান, প্রবীন সাংবাদিক আবু তাহের, ফেনী শহর ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পারভেজুল ইসলাম হাজারী প্রমুখ।

এসময় ফেনীর পৌরসভার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ, পৌর সিএনজির মালিক, চালক সহ শহরের গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্যসমূহ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করুন

    কোনো মন্তব্য খুঁজে পাওয়া যায় নি

মন্তব্য করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।