দাগনভূঞায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে অপহরণ ও লুট


দাগনভূঞা হতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে একদল দুর্বৃত্ত তারেক রহমান (২৬) নামে এক ব্যক্তিকে অপহরণ ও ৪ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ জড়িতদের শনাক্ত করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এর আগে গত বছরের ২১ অক্টোবর একই কায়দায় ইসলামী ব্যাংক এজেন্ট ব্যবসায়ী মো. আবু জাফর শাহীনকে প্রাইভেটকারে তুলে নিয়ে ২৭ লক্ষাধিক টাকা কেড়ে তাকে কুমিল্লার দয়াপুরে ফেলে গিয়েছিল।


ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী তারেক জানান, গত সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) বিকালে দাগনভূঞায় ইসলামী ব্যাংক থেকে ৪ লাখ টাকা তুলে যাত্রীবাহী সিএনজিযোগে উপজেলার পূর্বচন্দ্রপুর মডেল ইউনিয়নের আমুভূঞার হাট যাচ্ছিলেন। এসময় পৌর এলাকার গজারিয়া রোডের ফিশারীর মোড়ের কাছাকাছি পৌঁছালে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ পরিচয়ে ৫ দুর্বৃত্ত তাকে একটি প্রাইভেট কারে তুলে নেয়। এরপর একটি নির্জন জায়গায় নিয়ে অস্ত্রের মুখে তারেককে ভয়ভীতি দেখিয়ে এবং হাতে হাতকড়া পরায়। এরপর টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তাকে কুমিল্লা জেলার লালমাই নামক স্থানে গাড়ি থেকে রাস্তায় ফেলে দিয়ে দ্রুতই পালিয়ে যায়।


অপহরণকারীরা ফেনী-নোয়াখালীর আঞ্চলিক ভাষায় কথা বলছিলেন বলে জানান ভুক্তভোগী।


ব্যবসায়ী তারেক উপজেলার পূর্বচন্দ্রপুর মডেল ইউনিয়নের আমুভূঞার হাটে রুবেল টেলিকম এন্ড কম্পিউটার, মোবাইল এক্সেসরিজ ও বিকাশের দোকান রয়েছে। সে ওই এলাকার আমান উদ্দিন বেপারী বাড়ির রমজান আলীর ছেলে।


এ ব্যাপারে ফেনীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) মাঈনুল ইসলাম জানান, থানায় মামলা করার পর ভিকটিমকে নিয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছি। এ ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনতে পুলিশ সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছে।
দাগনভূঞা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ইমতিয়াজ আহমেদ জানান, ব্যবসায়ী তারেকের দেয়া দেয়া তথ্য অনুযায়ী বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হচ্ছে।

মন্তব্যসমূহ

আপনার মূল্যবান মতামত প্রদান করুন

    কোনো মন্তব্য খুঁজে পাওয়া যায় নি

মন্তব্য করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।